অন্যান্যভ্রমণ

বাংলাদেশের ১০০ তরুণ-তরুণীর ভারত ভ্রমণ প্রক্রিয়া শুরু

টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা:বাংলাদেশের ১০০ তরুণ-তরুণীর ভারত ভ্রমণ বিষয়ক কর্মসূচি ইয়ুথ ডেলিগেশন টু ইন্ডিয়ায় আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। রোববার (১৫ মে) ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশনে এক জাঁকালো আয়োজনের মধ্যদিয়ে এ আবেদন প্রক্রিয়ার উদ্বোধন করেন বাংলাদেশের তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এবং ঢাকাস্থ ভারতের হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী। দেশের ২১ থেকে ৩৫ বছর বয়সী নারী-পুরুষ আবেদন করে বাছাই প্রক্রিয়ার মধ্যদিয়ে হতে পারবেন ১০০ জনের একজ।
২০১২ সালে ভারতের তৎকালীন রাষ্ট্রপতি প্রয়াত প্রণব মুখার্জির ইচ্ছায় ইয়ুথ ডেলিগেশন টু ইন্ডিয়া কার্যক্রম শুরু হয়। এটি বাংলাদেশ ও ভারত সরকারের যুব ও ক্রীড়াবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মধ্যে সই করা একটি যুব সহযোগিতা বিষয়ক সমঝোতা স্মারকের অংশ। করোনা মহামারির কারণে ২০২০ ও ২০২১ সালে এ কর্মসূচি বন্ধ ছিল। এ বছর থেকে সেই সুবর্ণ সুযোগ সামনে এলো বাংলাদেশের তরুণ-তরুণীদের সামনে।
আগেরবারের তুলনায় এবারের আবেদন প্রক্রিয়ায় বেশ নতুনত্ব এসেছে। আবেদনকারীকে নিজের সম্পর্কে একটি ভিডিও তৈরি করতে হবে, যার দৈর্ঘ্য ১২০ সেকেন্ডের বেশি হওয়া যাবে না। এ ভিডিওতে আবেদনকারী তার পরিচিতির পাশাপাশি তিনি কেন এ কর্মসূচিতে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার যোগ্য তা তুলে ধরতে পারবেন। বানানো সেই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যক্তিগত আইডিতে পোস্ট করে তার লিংক আবেদনপত্রের সঙ্গে যুক্ত করে দিতে হবে। এ দুই মিনিটের মধ্যেই নিজের স্মার্টনেস তুলে ধরতে হবে, দেখাতে হবে ডেলিগেশন টিমের সদস্য হওয়ার যোগ্যতা।
আবেদনের জন্য প্রথমেই আগ্রহীদের ঢুকতে হবে ভারতীয় হাইকমিশনের ওয়েবসাইটে, সেখানে হানড্রেড বাংলাদেশ ইয়ুথ ডেলিগেশন টু ইন্ডিয়া লেখা একটি পপ-আপ নোটিশ দেখতে পাবেন। এ নোটিশেই লেখা আছে আবেদনের জন্য ক্লিক করার কথা ক্লিক টু অ্যাপ্লাই। সেখানে ক্লিক করলে আসবে আবেদন সংক্রান্ত নির্দেশিকা। যেখানে যোগ্যতার মানদণ্ড, আবেদন জমা দেওয়ার পদ্ধতি ও অন্যান্য শর্ত উল্লেখ আছে।
নির্দেশিকার শেষভাগে আছে আবেদন করার অপশন (ক্লিক হেয়ার টু অ্যাপ্লাই)। সেখানে ক্লিক করলে আসবে আবেদনের মূল ধাপ। এখানে নির্দেশনা অনুসারে আবেদনকারীর জীবনবৃত্তান্তের ঘরগুলো পূরণ করতে হবে। এ ঘরগুলোর একটিতেই থাকবে ১২০ সেকেন্ড বা দুই মিনিটের আপলোড করা ভিডিওটির লিংক যুক্ত করার অপশন। সব ঘর পূরণ করে শেষে সাবমিট ক্লিক করলেই হয়ে যাবে আবেদন। বাকি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবে হাইকমিশন কর্তৃপক্ষ।
জানা গেছে, ৩০ জুন পর্যন্ত আবেদন নেওয়া হবে। নির্দেশনা অনুসারে, অংশগ্রহণকারীদের অবশ্যই সঠিকভাবে আবেদনপত্র পূরণ এবং জমা দিতে হবে। অসম্পূর্ণ আবেদন বাতিল করা হবে। প্রার্থীদের চূড়ান্ত নির্বাচন একমাত্র ভারতীয় হাইকমিশনের বিবেচনার ভিত্তিতে হবে।
এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য রয়েছে বাংলাদেশ ইয়ুথ ডেলিগেশন টু ইন্ডিয়ার ফেসবুক পেইজে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button