জাতীয়

মার্কিন বিমানে চীনা পতাকা লাগিয়ে রাশিয়ায় বোমা ফেলতে বললেন ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মার্কিন যুদ্ধবিমানে চীনের পতাকা লাগিয়ে রাশিয়ায় বোমা ফেলার অভিনব উপায় বাতলে দিয়ে আবারও বিশ্ব গণমাধ্যমের শিরোনামে এসেছেন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। শনিবার নিউ অরলিন্সে রিপাবলিকান পার্টির তহবিল সংগ্রহ অনুষ্ঠানে এই পরামর্শ দিয়ে হাসির পাত্রে পরিণত হয়েছেন তিনি।
যুক্তরাষ্ট্রের দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সাবেক এই প্রেসিডেন্ট শনিবার রিপাবলিকান পার্টির শীর্ষ দাতাদের সঙ্গে এক অনুষ্ঠানে অংশ নেন। সেখানে তিনি রাশিয়া-ইউক্রেন সংকট নিয়ে দীর্ঘ সময় ধরে কথা বলেন। দাতাদের সঙ্গে আলোচনায় ট্রাম্প বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের এফ-২২ বিমানগুলো চীনা পতাকা দিয়ে লেবেল করা এবং সেসব ব্যবহার করে রাশিয়ায় বোমা ফেলা উচিত।
এ সময় তিনি উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনকে ‘অত্যন্ত কঠোর’ হিসাবে উল্লেখ করে তার প্রশংসা করেন। একই সঙ্গে বিশ্বের অন্যান্য যেকোনো প্রেসিডেন্টের চেয়ে ভ্লাদিমির পুতিনের প্রতি অনেক বেশি কঠোর ছিলেন বলে দাবি করেন তিনি।
চীনের পতাকা মার্কিন বিমানে লাগিয়ে রাশিয়ায় বোমা ফেলার ব্যাপারে ট্রাম্প বলেন, ‘তখন আমরা বলবো, চীন এটা করেছে, আমরা করিনি। চীন করেছে। তখন তাদের (চীন-রাশিয়া) মধ্যে লড়াই শুরু হবে এবং আমরা পেছনে বসে তা দেখবো।’
ট্রাম্পের এমন পরামর্শ শুনে রিপাবলিকান দলীয় দাতারা অনুষ্ঠানে অট্টহাসি দেন, সাবেক এই প্রেসিডেন্টের এমন অদ্ভূত পরামর্শের একটি অডিও পেয়েছে ওয়াশিংটন পোস্ট।
রিপাবলিকান দলীয় প্রায় ২৫০ জন শীর্ষ দাতা ওই অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিলেন, ট্রাম্প সেখানে ৮৪ মিনিট ধরে বক্তৃতা দিয়েছেন। বক্তৃতার বেশিরভাগ সময়জুড়ে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান পররাষ্ট্রনীতি এবং ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জালিয়াতি নিয়ে কথা বলেছেন।
ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলার বিষয়ে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে ‘বুদ্ধিমান’ বলে প্রশংসা করে গত মাসে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে শনিবার আরও এক দাবি করেছেন তিনি। বলেছেন, তিনি যদি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট থাকতেন, তাহলে পুতিন কখনই ইউক্রেন আক্রমণ করতে পারতো না।
ট্রাম্প বলেন, ‘আমি পুতিনকে ভালোভাবে জানি। তিনি এটা করতেন না। তিনি কখনই এটা করতেন না।’প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সঙ্গে একাধিকবার বৈঠক করেছিলেন ট্রাম্প। সেই সময় কিম জং উনের শীর্ষ জেনারেল এবং সহযোগীরা উত্তর কোরিয়ার নেতাকে কেমন ‘ভয়’ পান, তা স্বচক্ষে দেখেছেন ট্রাম্প।
সেনা জেনারেল এবং সহযোগীদের ‘ভীতিকর’ রাখতে পারায় তার প্রশংসা করেন সাবেক এই মার্কিন প্রেসিডেন্ট। তখন তিনি কিম কীভাবে দেশ চালাচ্ছেন, সেবিষয়ে মার্কিন জেনারেলদের মনোযোগ আকর্ষণ করে বলেছিলেন, ‘সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ।’
ট্রাম্প বলেন, ‘কিম জং উনের লোকজন মনোযোগের সাথে বসে ছিল।’ হাসতে হাসতে তিনি বলেন, ‘তখন আমি আমার লোকজনের দিকে তাকিয়ে বলেছিলাম যে, আমি চাই আমার লোকজন এভাবে কাজ করুক।’

সূত্র: ওয়াশিংটন পোস্ট।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button