আন্তর্জাতিকলীড

রাশিয়া-ইউক্রেন: কার শক্তি কেমন?

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সম্প্রতি ইউক্রেন সীমান্তে লাখখানেক সেনা মোতায়েন করার পর যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিমা দেশগুলো অভিযোগ করে আসছিল, যে কোনো মুহূর্তে ইউক্রেনে হামলা চালাবে রাশিয়া। তবে রাশিয়া বরাবর সে কথা অস্বীকার করে আসছিল। সবশেষ খবর হলো, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন পূর্ব ইউক্রেনের দোনেৎস্ক এবং লুহানস্ককে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দিয়েছে। একইসঙ্গে তিনি সেখানে সেনা পাঠানো নির্দেশ দিয়েছেন।
এ অবস্থায় রাশিয়ায় ৫টি গুরুত্বপূর্ণ ব্যাংক ও তিন ব্যক্তির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে যুক্তরাজ্য। ইউক্রেন ইস্যুতে রাশিয়ার বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়া সব পক্ষই বলছে, রাশিয়ার এমন আচরণ শান্তির বিপরীত। প্রশ্ন উঠেছে, রাশিয়ার সঙ্গে কি যুদ্ধে লিপ্ত হবে ইউক্রেন? যদি তাই হয়, তবে শক্তির বিচারে কোন পক্ষ এগিয়ে থাকবে? আসুন দেখে নেওয়া যাক সামরিক শক্তিতে কোন দেশের অবস্থান কোথায়। ইউক্রেনের চেয়ে সামরিক শক্তিতে অনেক এগিয়ে রয়েছে রাশিয়া। বিশ্বের সামরিক শক্তিধর ১৪০টি দেশের মধ্যে রাশিয়ার অবস্থান দ্বিতীয়। আর ইউক্রেনের অবস্থান ২২তম। রাশিয়ার সৈন্য সংখ্যা আট লাখ ৫০ হাজার। ইউক্রেনের সৈন্য সংখ্যা দুই লাখ। রাশিয়ার আধা সামরিক বাহিনীর সদস্য সংখ্যা আড়াই লাখ। ইউক্রেনের মাত্র ৫০ হাজার।
আকাশেও রাশিয়ার ধারে কাছে নেই ইউক্রেন। তাদের মোট আকাশযান রয়েছে ৪ হাজার ১৭৩টি। অন্যদিকে ইউক্রেনের আছে মাত্র ৩১৮টি। আর ইউক্রেনের যুদ্ধবিমান মাত্র ৬৯টি, যেখানে রাশিয়ার রয়েছে ৭৭২টি। রাশিয়ার মোট হেলিকপ্টার ১,৫৪৩টি। এর মধ্যে অ্যাটাক হেলিকপ্টার ৫৪৪টি। অন্যদিকে ইউক্রেনের হেলিকপ্টার রয়েছে ১১২টি, অ্যাটাক কপ্টার ৩৪টি। রাশিয়ার ১২ হাজার ৪২০টি ট্যাঙ্কের বিপরীতে ইউক্রেনের আছে ২,৫৯৬টি।
আমর্ড ভেহিকেল রাশিয়ার রয়েছে ৩০,১২২টি, ইউক্রেনের রয়েছে ১২,৩০৩টি। স্বয়ংক্রিয় আর্টিলারি রাশিয়ার আছে ৬,৫৭৪টি, ইউক্রেনের আছে ১,০৬৭টি। রাশিয়ার মোবাইল রকেট প্রজেক্টর রয়েছে ৩,৩৯১টি, ইউক্রেনের আছে ৪৯০টি। সামরিক নৌযানের দিক থেকে অনেক এগিয়ে রয়েছে রাশিয়া। রাশিয়ার নৌ সামরিক যান ৬০৫টি থাকলেও ইউক্রেনের রয়েছে ৩৮টি। রাশিয়ার একটি বিমানবাহী রণতরী আছে। কিন্তু ইউক্রেনের তা নেই। রাশিয়ার সাবমেরিন আছে ৭০টি। ইউক্রেনের একটিও নেই। ইউক্রেনের কোন ডেস্ট্রয়ার নেই, তবে রাশিয়ার রয়েছে ১৫টি। ইউক্রেনের একটি ফ্রিগেট থাকলেও রাশিয়ার রয়েছে ১১টি। মাইন ওয়ারফেয়ার নৌযান ইউক্রেনের একটা থাকলেও রাশিয়ার রয়েছে ৪৯টি। রাশিয়ার করভেট রয়েছে ৮৬টি, যেখানে ইউক্রেনের আছে মাত্র একটি। এর বাইরে রাশিয়া পারমাণবিক শক্তিধর দেশ কিন্তু ইউক্রেনের এরকম কোন অস্ত্র নেই। রাশিয়ার এস-৪০০ নামের অত্যন্ত শক্তিশালী মিসাইল সিস্টেম রয়েছে, যা আকাশ প্রতিরক্ষায় খুবই কার্যকর, তবে ইউক্রেনের এরকম কোনো ব্যবস্থা নেই।
সূত্র: বিবিসি বাংলা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button