আন্তর্জাতিকলীড

কুর্দি বিদ্রোহীদের অবস্থানে হামলায় অংশ নিয়েছে ৬০ তুর্কি জঙ্গিবিমান

টাইমস২৪ ডটনেট: ইরাক ও সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে কুর্দি বিদ্রোহীদের অবস্থানে ভয়াবহ বিমান হামলা চালিয়েছে তুরস্ক। তুর্কি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেছে, হামলায় ৬০টি যুদ্ধবিমান ও ড্রোন অংশ নিয়েছে; অন্যদিকে ইরাকের স্বায়ত্বশাসিত কুর্দিস্তান অঞ্চলের কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, হামলায় বহু মানুষ হতাহত হয়েছে। কুর্দিস্তানের সন্ত্রাস-বিরোধী সার্ভিস বলেছে, সেখানকার মাখমুর ও সিনজার অঞ্চলে পিকেকে বিদ্রোহীদের বেশ কয়েকটি অবস্থানে বিমান হামলা চালিয়েছে তুরস্ক।
তুর্কি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে, ইরাক ও সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় দেরিক, সিনজার ও কারারাক অঞ্চলে পিকেকে এবং ওয়াইপিজি গেরিলাদের অবস্থানে হামলা চালানো হয়েছে। তুরস্কের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় আরো বলেছে, ‘সন্ত্রাসীদের’ আশ্রয়স্থল, বাঙ্কার, গুহা, টানেল, অস্ত্রের গুদাম এবং কথিত সদরদপ্তর ও প্রশিক্ষণ শিবিরগুলো লক্ষ্য করে হামলা চালানো হয়েছে। এসব হামলায় বহু ‘কুর্দি সন্ত্রাসী’ হতাহত হয়েছে বলে দাবি করেছে ওই মন্ত্রণালয়। তবে হামলায় হতাহতদের সঠিক সংখ্যা জানাতে পারেনি কোনো পক্ষ। ইরাকের সেনাবাহিনী এ হামলার নিন্দা জানিয়ে বলেছে, দেশটির আকাশসীমায় অনুপ্রবেশ করে চালানো এ হামলায় ইরাকের সার্বভৌমত্ব লঙ্ঘিত হয়েছে। তুরস্কের একাংশ নিয়ে একটি স্বাধীন কুর্দিস্তান গঠনের লক্ষ্যে কয়েক দশক ধরে সশস্ত্র সংগ্রাম করছে পিকেকে গেরিলারা। তুরস্কসহ তার পশ্চিমা মিত্ররা এটিকে সন্ত্রাসী গোষ্ঠী বলে চিহ্নিত করেছে। তুর্কি সেনাবাহিনী প্রায়ই ইরাকের উত্তরাঞ্চলীয় কুর্দিস্তানে পিকেকে অবস্থানে বিমান হামলা চালায় যার ফলে প্রায়ই আঙ্কারার সঙ্গে বাগদাদের সম্পর্কে টানাপোড়েন থাকে। গত ডিসেম্বরে পিকেকে বিদ্রোহীদের হামলায় তিন তুর্কি সেনা নিহত হওয়ার জের ধরে তুরস্ক ওই অঞ্চলে বিমান হামলা চালিয়েছিল।

সূত্র: পার্সটুডে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button