21.7 C
New York
Tuesday, September 28, 2021

তালেবান শঙ্কা উড়িয়ে স্কুলে ফিরল আফগান মেয়েরা


টাইমস ২৪ ডটনেট, আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সশস্ত্র ইসলামি গোষ্ঠী তালেবানের দেশ দখলের দু’দিন পর আফগানিস্তানের পশ্চিমাঞ্চলীয় হেরাত শহরে সাদা হিজাব ও কালো বোরকা পরে স্কুলে ফিরেছে মেয়ে শিক্ষার্থীরা। স্কুলের শিক্ষার্থীরা বলেছে অন্যান্য দেশের মতো অগ্রগতি চাই। আর তালেবান নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে বলে আমরা আশা করছি। আমরা যুদ্ধ চাই না, দেশে শান্তি চাই। বুধবার ফরাসী বার্তাসংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে মেয়েদের স্কুলে ফেরার এই খবর দেওয়া হয়েছে। তবে ব্রিটিশ সেনাপ্রধান নিক কার্টার বলেছেন, বিশ্বের উচিত তালেবানদের নতুন সরকার গঠনের সুযোগ দেওয়া। হয়তো দেখা যাবে, পশ্চিমারা কয়েক দশক যাদের জঙ্গি বিবেচনা করছে তারা (তালেবান) আরো কাণ্ডজ্ঞানসম্পন্ন আচরণ করছে এবং বদলে গেছে। এছাড়াও কাবুল বিমানবন্দরে ঢোকার অপেক্ষায় বাইরে দাঁড়ানো মানুষ বলছেন সেখানে গুলি চালানো হয়েছে। গতকাল বুধবার কিছু ফ্লাইট সফলভাবে আফগানিস্তানের কাবুল বিমানবন্দর ছেড়েছে। কিন্তু ইউরোপের দেশগুলো তাদের নাগরিকদের বিমানবন্দর এলাকায় নিতে হিমশিম খাচ্ছে। গুলির ঘটনার পর বিশঙ্খলাও হয়েছে সেখানে।
বার্তা সংস্থা এএফপি বলছে, হেরাতের স্কুলের দরজা খুলে যাওয়ার পর ছাত্রীরা করিডোরে ও স্কুল চত্বরে আড্ডায় মেতে ওঠে। গত দুই সপ্তাহ ধরে দেশটিতে যে অস্থিরতা তৈরি হয়েছে, ছাত্রীদের দেখে মনে হয়েছে তারা সে বিষয়ে কিছুই জানে না। তালেবানের শাসনামলে মেয়েদের স্কুল শিক্ষা নিষিদ্ধ করা হতে পারে বলে যে শঙ্কা তৈরি হয়েছিল, আপাতত সেই শঙ্কার মেঘ কেটে গেছে। সরকারি বাহিনী এবং স্থানীয় মিলিশিয়াদের পতনের পর হেরাতের দখল তালেবানের হাতে চলে যাওয়ার পর চলতি সপ্তাহে এএফপির একজন আলোকচিত্রী ছাত্রীদের স্কুলে ফেরার ছবি ক্যামেরায় ধারণ করেন।
রোকিয়া নামের এক শিক্ষার্থী বলেন, আমরা অন্যান্য দেশের মতো অগ্রগতি চাই। আর তালেবান নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে বলে আমরা আশা করছি। আমরা যুদ্ধ চাই না, দেশে শান্তি চাই।
ইরান সীমান্তের কাছের শহর হেরাতের প্রাচীন সিল্ক রোড এলাকাটি দীর্ঘদিন ধরে আফগানিস্তানের অন্যান্য অধিক রক্ষণশীল অঞ্চলের তুলনায় ব্যতিক্রম। এই এলাকার নারী ও তরুণীরা রাস্তায় অবাধে হাঁটেন। কবিতা ও শিল্পকলার জন্য বিখ্যাত এই শহরের স্কুল-কলেজে ছাত্র-ছাত্রীদের প্রচুর উপস্থিতি দেখা যায়। তবে এই শহরের ইতিহাস-ঐতিহ্যের ভবিষ্যৎ কেমন হবে তা এখনো অনিশ্চিত। ১৯৯০ এর দশকে আফগানিস্তান নিয়ন্ত্রণের সময় তালেবানরা যে শরিয়া আইনের কঠোর প্রয়োগ করেছিল তাতে নারী ও মেয়েদের বেশিরভাগই শিক্ষা ও চাকরি থেকে বঞ্চিত ছিলেন। শরীরের আপাদমস্তক ঢেকে জনসম্মুখে আসা নারীদের জন্য বাধ্যতামূলক করা হয় এবং পুরুষ সঙ্গী ছাড়া কোনো নারী ঘর থেকে বের হতে পারতেন না।
তবে ব্রিটিশ সেনাপ্রধান নিক কার্টার বলেছেন, বিশ্বের উচিত তালেবানদের নতুন সরকার গঠনের সুযোগ দেওয়া। হয়তো দেখা যাবে, পশ্চিমারা কয়েক দশক যাদের জঙ্গি বিবেচনা করছে তারা (তালেবান) আরও কাণ্ডজ্ঞানসম্পন্ন আচরণ করছে এবং বদলে গেছে।
এক তালেবান নেতাও গতকাল বুধবার বলেছেন, গত ২০ বছর ধরে তাদের শীর্ষ নেতারা লুকিয়ে কিংবা আত্মগোপনে ছিলেন। কিন্তু তারা এখন আর লুকিয়ে থাকবেন না। গোপন জীবনযাপন ছেড়ে প্রকাশ্যে আসবেন। ইতোমধ্যে তালেবানের অনেক নেতা অবশ্য আফগানিস্তানে ফিরেছেন।
ব্রিটিশ সংবাদ সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদন অনুযায়ী ব্রিটেনের চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ নিক কার্টার বলেছেন, তিনি আফগানিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাইয়ের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন। গতকাল বুধবার তালেবান নেতাদের সঙ্গে কারজাই বৈঠক করেছেন বলেও জানিয়েছেন কার্টার।
কার্টার বলেন, আমাদের ধৈর্য ও মানসিক স্থিতি রাখতে হবে। তাদেরকে সরকার গঠনের জন্য আমাদের সুযোগ দিতে হবে এবং তাদের প্রতিশ্রুতি রক্ষার সময় দিতে হবে। হতে পারে, যে তালেবানকে ১৯৯০ এর দশকে মানুষ দেখেছে এই তালেবান তার থেকে ভিন্ন।
ব্রিটিশ সেনাপ্রধান বলেন যদি আমরা তাদের সুযোগ দিই তাহলে হয়তো ভালোভাবে দেখতে পাব, এই তালেবান অবশ্যই কাণ্ডজ্ঞানসম্পন্ন হয়েছে। আমাদের মনে রাখতে হবে, তালেবান সমগোত্রীয় সংগঠন নয়, তালেবান হচ্ছে ভিন্ন ভিন্ন উপজাতীয় ব্যক্তিদের নিয়ে গঠিত একটি গোষ্ঠী, যেখানে গোটা আফগানিস্তানের মানুষ আছে। কার্টার বলেন, তালেবানরা মূলত ‘দেশের ছেলে’ যারা তাদের ‘পশতুনওয়ালি’ জীবনপ্রণালীর অধীনে জীবনযাপন করে। পশতুনওয়ালি হলো পশতু জনগণের ঐতিহ্যবাহী জাতিগত জীবনধারা ও আচরণবিধি। তারা এটাই মানে।
ব্রিটিশ সেনাপ্রধান বলেন, এটা হতে পারে তালেবান আরও কাণ্ডজ্ঞানসম্পন্ন আচরণ করছে। তাদের সরকার হবে কম দমনমূলক। যদি আপনি এই মুহূর্তে তালেবান যেভাবে কাবুল শাসন করছে তা লক্ষ্য করেন তাহলে এর ইঙ্গিত পাবেন।
তবে ব্রিটিশ সেনাবাহিনীর প্রবীণ কর্তাব্যক্তিরা এ ব্যাপারে সন্দেহ প্রকাশ করছেন। যেমন আফগানিস্তানে দায়িত্ব পালন করে আসা ও সামরিক জোট ন্যাটোর জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা ব্রিটিশ সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল চার্লি হারবার্ট স্কাই নিউজকে বলেছেন, তাদের (তালেবান) এই মিষ্টি ও সহজ সরল কথায় মানুষের বিভ্রান্ত হওয়া উচিত হবে না।
তার মতে, তালেবানের এখন আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি দরকার। কারণ তারা জোর করে ক্ষমতা দখল করেছে। তাই তারা আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির জন্য মরিয়া। চীন, রাশিয়া ও পশ্চিমাদের থেকে তাদের স্বীকৃতি প্রয়োজন। এ কারণে তারা নারীদের সমানাধিকার দেওয়ার মতো আকর্ষণীয় শব্দ ব্যবহার করছে এবং আগামীতেও এটা করবে।
সাবেক এই সেনা কর্মকর্তার দাবি, তালেবান যে বদলে গেছে বা তাদের মধ্যে যে পরিবর্তন এসেছে এমন কোনো প্রমাণ নেই। তারা অপেক্ষা করছে, কখন আমরা (বিদেশিরা) কাবুল ছাড়ব। এরপর তাদের হাতে রক্তক্ষরণ হবে অসংখ্য মানুষের। কারণ তখন সাংবাদিক বা বিশ্বের কেউ এটা দেখার জন্য সেখানে থাকবে না।
অপরদিকে আফগানিস্তানে নতুন সরকার গঠন করতে যাচ্ছে তালেবান। এক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির ব্যাপারটি সামনে এসেছে। তবে আফগানিস্তানের প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তান জানিয়েছে, এখনই তালেবানদের স্বীকৃতি দিচ্ছে না দেশটি। বরং আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক মিত্রদের সঙ্গে আলোচনার পরই ইসলামাবাদ এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে। দেশটির কেন্দ্রীয় সরকারের তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী গত মঙ্গলবার মন্ত্রীসভার এক বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বলেন, গত শতকের নব্বইয়ের দশকে আফগানিস্তানে যখন তালেবান সরকার গঠন করেছিল তখন যে তিনটি দেশ সবার আগে স্বীকৃতি দিয়েছিল, তাদের একটি ছিল পাকিস্তান। তবে এবার তালেবান সরকারকে এখনই স্বীকৃতি দেওয়ার কেনো পরিকল্পনা আপাতত সরকারের নেই।
এ বিষয়ক কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে আফগানিস্তানের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হবে, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক মিত্রদের সঙ্গে আলোচনা করা হবে, তাদের পরামর্শ নেওয়া হবে। তবে আমরা সন্তুষ্ট যে আফগানিস্তানে ক্ষমতার পালাবদলের সময় কোনো রক্তপাত বা সহিংসতার ঘটনা ঘটেনি। তালেবানদের স্বীকৃতি দেওয়ার ক্ষেত্রে পাকিস্তানকে গুরুত্ব দিচ্ছে বিশ্বের কয়েকটি প্রভাবশালী দেশ। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান ইতোমধ্যে জানিয়েছেন, পাকিস্তানের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে তালেবানদের স্বীকৃতির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন তিনি।
একই ইস্যুতে মঙ্গলবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে টেলিফোন করেছেন জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মেরকেল এবং যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। ফোনালাপে তারা আফগানিস্তানের সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেছেন বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে পাকিস্তানের জাতীয় দৈনিক ডন। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী অবশ্য এখন পর্যন্ত এ ব্যাপারে সরাসারি কোনো কথা বলেননি, তবে বুধবার এক বিবৃতিতে তালেবান ও সরকারি বাহিনীর সংঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত আফগানিস্তানের সাধারণ মানুষের প্রতি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে সহানুভূতিশীল হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশ, কানাডা, নিউজিল্যান্ড ও ভারত অবশ্য জানিয়েছে, তালেবান সরকার গঠন করলে সেই সরকারকে স্বীকৃতি দেবে না তারা।
সূত্র জানায়, একে একে প্রায় সব দেশই নিজেদের নাগরিকদের আফগানিস্তান থেকে সরিয়ে নিচ্ছে। গত রোববার তালেবান রাজধানী কাবুল দখলের পর আফগানিস্তানের পুরো নিয়ন্ত্রণই তালেবানের হাতে চলে যায়। তারপর থেকে বিভিন্ন দূতাবাস থেকে লোকজনকে সরিয়ে নেওয়া শুরু হয়।
এদিকে আফগান সংকট নিয়ে জরুরি বিতর্ক শুরু হয়েছে ব্রিটেনের পার্লামেন্টে। ২০ হাজার আফগান শরণার্থী গ্রহণের পরিকল্পনা নিয়ে এর মধ্যেই ব্রিটিশ সরকার সমালোচনার মুখে পড়েছে।
কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, প্রথম পাঁচ হাজার শরণার্থী এই বছরের শেষ নাগাদ এসে পৌঁছাবে। পরবর্তী পাঁচ বছর ধরে বাকিদের ব্যবস্থা করা হবে। সাবেক কনজারভেটিভ মন্ত্রী ডেভিডসহ সমালোচকরা বলছেন, যতজনের দায়িত্ব নেয়া উচিত এই সংখ্যা তার কাছে কিছুই না।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রীতি প্যাটেল বিবিসিকে বলেন, পুরো কর্মসূচী শুরু এবং চালাতে আরও কিছুটা সময়ের প্রয়োজন। কনজারভেটিভ মন্ত্রী টোবিয়াস এলউড জনসনের কাছে প্রশ্ন করেন যে, এখন সেই একই বাহিনীর কাছে ক্ষমতা ফিরিয়ে দেয়ার সঙ্গে তিনি একমত কীনা? ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী এর জবাবে বলেন, আমাদের অভিযানে আমরা সফল হয়েছি এবং আফগানিস্তানের প্রশিক্ষণ শিবিরগুলো ধ্বংস করে দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, সব ষড়যন্ত্র নস্যাৎ হয়েছে কারণ আমাদের পুরুষ ও নারী কর্মীরা সেখানে ছিলেন। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী জনসন বলেন, টুইন টাওয়ারে হামলার ২০ বছর পার হয়ে গেছে। ওই হামলার পর আফগানিস্তানকে স্থিতিশীল করার জন্য যা কিছু করা দরকার ছিল সেটা করার জন্যই ন্যাটো বাহিনী সেখানে গেছে। আফগানিস্তান তালেবানদের নিয়ন্ত্রণে যাওয়ার পর সবচেয়ে বেশি সংকটে পড়েছে দেশটির দোভাষীরা। কাবুল দখলের পর থেকে ভিটেমাটি ছাড়তে লাখ লাখ আফগান ভিড় করে বিমানবন্দরে। যুক্তরাষ্ট্রসহ ৬০টির বেশি দেশ তাদেরকে জায়গা দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে আসছে। এর মাঝে ২০ হাজার আফগানকে আশ্রয় দেওয়ার ঘোষণা দেয় যুক্তরাজ্য। যুক্তরাজ্যের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আগামী বছরগুলোতে প্রায় ২০ হাজার আফগান নাগরিককে দেশটিতে বসবাসের অনুমতি দেওয়া হবে।
এদিকে, আফগানিস্তানের পূর্বাঞ্চলীয় শহর জালালাবাদে দেশটির পুরোনো পতাকা সরিয়ে সবখানে তালেবানের পতাকা উত্তোলনের বিরোধিতায় বিক্ষোভ করেছেন স্থানীয়রা। এসময় বিক্ষোভে গুলি চালানোর খবর পাওয়া গেছে। এতে অন্তত তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন আরো ডজনখানেক মানুষ। গতকাল বুধবার কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা এ তথ্য জানিয়েছে।
সংবাদমাধ্যমটির কাবুল প্রতিনিধি জানিয়েছেন, জালালাবাদের বাসিন্দাদের ‘মোটামুটি উল্লেখযোগ্য একটি অংশ’ আফগানিস্তানের জাতীয় পতাকার জায়গায় তালেবানের পতাকা উত্তোলনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছেন। তিনি বলেন, আমরা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেখেছি, রাস্তায় শত শত অথবা কয়েক হাজার মানুষ জাতীয় পতাকা নেড়ে বিক্ষোভ করছেন। আমরা জানি, তারা জালালাবাদের একটি গুরুত্বপূর্ণ চত্বরে আবার পতাকা তুলে দিয়েছে ও তালেবানের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়েছে।
বার্তা সংস্থা অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের খবর অনুসারে, বিক্ষোভ-সহিংসতার খবর প্রচারের চেষ্টা করায় বাবরাক আমিরজাদা নামে স্থানীয় এক সাংবাদিককে পিটিয়েছে তালেবান সদস্যরা। গত রোববার একপ্রকার বিনাযুদ্ধেই নানগারহার প্রদেশের জালালাবাদ শহর দখল করে তালেবান। এর মধ্যে দিয়ে আফগানিস্তান ও পাকিস্তান সংযোগকারী গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলোরও নিয়ন্ত্রণ নেয় সশস্ত্র বিদ্রোহীরা।
তালেবান তাদের ‘ইসলামিক আমিরাত অব আফগানিস্তান’-এর জন্য এখন পর্যন্ত যে পতাকাটি ব্যবহার করছে তাতে সাদার ওপর কালো হরফে কালেমা শাহাদাত লেখা রয়েছে। কিন্তু বিক্ষোভকারীরা কালো, লাল ও সবুজের মিশ্রণে পুরোনো তিনরঙা পতাকাকেই আফগানিস্তানের জাতীয় পতাকা হিসেবে রাখার দাবি তুলেছেন।
তালেবান মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ জানিয়েছেন, ভবিষ্যতে দেশটির জাতীয় পতাকা কোনটি হবে তা নিয়ে আলোচনা চলছে। এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে নতুন সরকার।
এছাড়াও কাবুল বিমানবন্দরে ঢোকার অপেক্ষায় বাইরে দাঁড়ানো মানুষ বলছেন সেখানে গুলি চালানো হয়েছে। গতকাল বুধবার কিছু ফ্লাইট সফলভাবে আফগানিস্তানের কাবুল বিমানবন্দর ছেড়েছে। কিন্তু ইউরোপের দেশগুলো তাদের নাগরিকদের বিমানবন্দর এলাকায় নিতে হিমশিম খাচ্ছে। গুলির পর বিশঙ্খলাও হয়েছে সেখানে।
ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদন অনুযায়ী ফরাসি, জার্মান, ডাচ ও চেক বিমান টারম্যাক থেকে উড়েছে, কিন্তু দেশ ছাড়ার চেষ্টায় মানুষ বিমানবন্দরের ফটকে ঢোকার চেষ্টা করলে গুলি ছোঁড়া হয়েছে বলে খবর আসছে। গত মঙ্গলবার রাতে একটি ডাচ সামরিক বিমান ৪০ জন যাত্রী নিয়ে উড়লেও কেউই ডাচ বা আফগান ছিল না। বিমানটিকে রানওয়েতে মাত্র আধা ঘন্টার জন্য থামতে দেওয়া হয়। একটি ডাচ আফগান পরিবার জানিয়েছে বিমানবন্দরের গেটে মার্কিন বাহিনী তাদের ঢুকতে বাধা দেয়।
গতকাল বুধবার অনেকে বিমানবন্দরে ঢোকার চেষ্টা করেছেন। কিন্তু প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেছেন, বিমানবন্দরের উত্তর গেটে হুঁশিয়ারিমূলক গুলি এবং কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়া হয়েছে। এর আগে গত সোমবারও কাবুল বিমানবন্দরে গুলি ও বিশঙ্খলার এমন ঘটনা ঘটেছিল।
গতকাল বুধবার সকালে ফ্রান্স জানিয়েছে, যে ২৫ জন ফরাসি নাগরিক ও ১৮৪ জন আফগানকে তারা আবু ধাবিতে নিয়ে গেছেন। তাদের অনেকে কাবুলের ফরাসি দূতাবাসে গিয়ে আশ্রয় নিয়েছিল বলে ফরাসি সরকারি কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে জানানো হয়েছে।
চেক একটি বিমানও ৮৭ জনকে নিয়ে আজ (বুধবার) প্রাগে পৌঁছেছে। জার্মান সরকার ১০ হাজার মানুষকে সরানোর কাজ শুরু করেছে। এর মধ্যে ১৩৯ জনকে নিয়ে তাদের প্রথম বিমানটি জার্মানি পৌঁছেছে। তাদের উজবেকিস্তান থেকে বিমানে তোলা হয়েছিল।

Related Articles

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন আজ

টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: দেশের দূরদর্শী ও বলিষ্ঠ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন আজ। ১৯৪৭ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন তিনি।...

প্রথম ধাপে ১৬০ ইউপি ও ৯ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ চলছে

টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: বাংলাদেশে প্রথম ধাপের ১৬০ ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) ও ৯ পৌরসভা নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে। সোমবার সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে।...

অস্ট্রেলিয়া ও আমেরিকার সঙ্গে সম্পর্ককে সংকটাপন্ন ঘোষণা করল ফ্রান্স

টাইমস ২৪ ডটনেট, আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আমেরিকা ও অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে সম্পর্ককে সংকটাপন্ন বলে ঘোষণা করেছে ফ্রান্স। ফ্রান্সের কাছ থেকে সাবমেরিন কেনার চুক্তি বাতিল করে দিয়ে...

Stay Connected

0ভক্তমত
0অনুগামিবৃন্দঅনুসরণ করা
0গ্রাহকদেরসাবস্ক্রাইব
- Advertisement -

Latest Articles

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন আজ

টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: দেশের দূরদর্শী ও বলিষ্ঠ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন আজ। ১৯৪৭ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন তিনি।...

প্রথম ধাপে ১৬০ ইউপি ও ৯ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ চলছে

টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: বাংলাদেশে প্রথম ধাপের ১৬০ ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) ও ৯ পৌরসভা নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে। সোমবার সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে।...

অস্ট্রেলিয়া ও আমেরিকার সঙ্গে সম্পর্ককে সংকটাপন্ন ঘোষণা করল ফ্রান্স

টাইমস ২৪ ডটনেট, আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আমেরিকা ও অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে সম্পর্ককে সংকটাপন্ন বলে ঘোষণা করেছে ফ্রান্স। ফ্রান্সের কাছ থেকে সাবমেরিন কেনার চুক্তি বাতিল করে দিয়ে...

তিনদিনের মহাকাশ ভ্রমণ শেষে পৃথিবীতে ফিরলেন চার সাধারণ পর্যটক

টাইমস ২৪ ডটনেট, আন্তর্জাতিক ডেস্ক: টানা তিনদিন মহাকাশ পরিভ্রমণ শেষে পৃথিবীতে ফিরেছেন চার জন পর্যটক। স্থানীয় সময় শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা উপকূলে নিরাপদে...

বাংলাদেশে ইউপি নির্বাচন : বিনা ভোটে আ.লীগের ৪৩ প্রার্থী জয়ী

টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: বাংলাদেশে ষষ্ঠ ধাপে স্থগিত থাকা ১৬১টি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে বিনা ভোটে ৪৩টি ইউপিতে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন।...