পল এলড্রিন বৃদ্ধাশ্রমে শতাধিক মায়েদের কে শাড়ি ও খাদ্যসামগ্রী বিতরন করলো

টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: পল এলড্রিন অসি গান প্রিয় মানুষ। তার নিজের প্রতিষ্ঠান “প্রাপ্তি আর্ট সাইন” এর ব্যানার হতে গান রিলিজ করে আসছেন। তিনি বিভিন্ন শিল্পীদের দিয়ে কখনো গান করাচ্ছেন আবার তিনি নিজেও কখনো গান করছেন। এভাবেই চলছে তার সংগীত জীবন।
গানের পাশাপাশি পল এলড্রিন অসি দীর্ঘদিন ধরে নানাবিধ উন্নয়নমুলক কর্মকান্ডের সাথে নিভিরভাবে সম্পৃক্ত রয়েছেন। দেশের নানা প্রান্তে ছুটে যান অসহায় ও দুস্থ্য মানুষগুলোর পাশে। কষ্টে থাকা কিছু কিছু অসহায় মানুষগুলোর একমাত্র ভরসা পল এলড্রিন অসি।

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হসপিটালের বার্ন ইউনিটের পুড়ে যাওয়া রোগিদের নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছেন পল এলড্রিন অসি। ইতিমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেশ-বিদেশে বেশ আলোচিত কয়েকটি ঘটনায় প্রশংসার জোয়ারে ভাসছেন তিনি, নিরবে মানুষের জন্য মানুষ আর এই ব্রত নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন প্রতি নিয়ত।

আপনাদের সুবিধা অসুবিধায় সরাসরি (০১৪০০-২৪৫২৬৭) আমাকে ফোন করে জানান, আমি প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন করবো, কারন মানুষ তো মানুষের জন্য।

“প্রাপ্তি আর্ট সাইন” কর্নধার পল এলড্রিন অসির একান্ত ব্যাক্তিগত উদ্যোগে আজ ঢাকা, উত্তরাতে অবস্থিত আপন নিবাস বৃদ্ধাশ্রমে শতাধিক অসহায় মায়েদের কে শাড়ি, থ্রি-পিস ও ১ মাসের বেশি খাদ্য সহায়তা দিয়েছেন।

পল এলড্রিন জানান, এই মহৎ কাজে যারা এগিয়ে এসেছেন তাদের ধন্যবাদ না দিলেই নয়, ধন্যবাদ জানাচ্ছি

এশিয়া মহাদেশের বিখ্যাত কন্ঠশ্রমিক আমার মা সমতুল্য রুমানা মোর্শেদ কনকচাঁপা, বিপাশা আপু, মুহিত ভাই, আফিয়া আপু, পলাশ খান ভাই, অাফরিন আপু, শাহরিয়ার রানা, মুরাদ ভাই ইফফাত আরা, ডলি আন্টি,তানিয়া আপু সহ সবাই কে।

এ সময় পোশাক ও ত্রান বিতরন কালে উপস্থিত ছিলেন, কন্ঠশিল্পী জাকিয়া সুলতানা মিতু, মো:ফারুক, সাংবাদিক মো:সোহেল, সবুজবাগ থানার এসআই হাসান ভাই সহ অনেকে।

আজ শতাধিক মায়েরা পল এলড্রিন অসিকে পেয়ে অানন্দে আত্নহারা, বৃদ্ধাশ্রমের পরিচালক ও ইনচার্জ প্রাপ্তি আর্ট সাইনের কর্নধার পল এলড্রিন অসিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

পল এলড্রিন অসি আমাদের জানান সারাদেশ আজ লকডাউন , করোনা ভাইরাসের কারণে থমকে গেছে আমাদের অর্থনীতি , সাধারণ জীবনযাপন কলকারখানা সহ সব ধরনের যানবাহন।
করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ করার জন্য
সবাই ঘরে থাকুন সংকল্পে উদ্বুদ্ধ হয়ে আমি কাজ করছি, এই পর্যন্ত কারো কাছ থেকে কোন সহযোগিতা চাইনি, চেষ্টা করছি আর করে যাচ্ছি শুধু মাত্র আপনাদের জন্য।

আমরা যারা সমাজের স্বাবলম্বী এবং মধ্যবিত্ত জীবন যাপন করছি , আমরা সবাই কিন্তু কোন না কোন উপায় ঘরে থেকে বের না হয়ে জীবনযাপন করতে পারছি কারন আমাদের অভাব খুব একটা বেশি না। আপনি প্রাপ্তি আর্ট সাইনের সহযোদ্ধা হয়ে এগিয়ে আসুন।

কিন্তু যারা সমাজের একদম নিম্নবিত্ত , দিনমজুর, রিকশাচালক তারা কি করবে? যাদের সন্তানরা প্রতিনিয়ত চেয়ে থাকে তাদের বাবা খাবার নিয়ে কখন বাড়িতে ফিরবে।আমরা কি এই শ্রমিক মানুষ গুলোর কথা একটু ভাবতে পারিনা। এই মানুষগুলো যেন ঘর বন্দী অবস্থায় কোনক্রমে অনাহারে না থাকে , তাদের সন্তান গুলোকে যেন রাতের বেলা না খেয়ে ঘুমাতে হয়, আমাদের উচিত তাদের জন্য কিছু করা। আপনি ঘরে থাকুন নিরাপদ থাকুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

etiler escort taksim escort beşiktaş escort escort beylikdüzü