লাইফ স্টাইল

দেশের জন্য অ্যামেরিকায় রাজপথ কাপাচ্ছেন বাংলাদেশি তরুণী

টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতির দিক দিয়ে সবচেয়ে ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ। তাই নিজ দেশের জন্য বিশ্ব সম্প্রদায়ের মাঝে দায়দায়িত্ব ও সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য মাঠে নেমেছেন রেবেকা শবনম নামের এক বাংলাদেশি তরুণী।স্পেনে চলছে বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলন। এই সম্মেলনকে সামনে রেখে গত সেপ্টেম্বরে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনের সময় জলবায়ু পরিবর্তনরোধে সোচ্চার সুইডিশ কিশোরী গ্রেটা থানবার্গের ডাকে যুক্তরাষ্ট্রের ম্যানহাটনে একত্রিত হয়েছিল ২ লাখেরও বেশি মানুষ; যাদের সামনের সারিতে ছিল রেবেকা শবনমও।

তাকের জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে বাংলাদেশের ক্ষতির দিকগুলো জোরালোভাবে তুলে ধরেছেন। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা ১৬ বছর বয়সী এ কিশোরীকে নিয়ে একটি প্রতিবেদনও প্রকাশ করেছে।

মাত্র ৬ বছর বয়সে নিউইয়র্কে পাড়ি জমানো রেবেকা ওই সমাবেশে বাংলাদেশে বসবাসরত অবস্থায় তার অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরেন। ঢাকায় বন্যার সময় চাচার কাঁধে চড়ে কীভাবে তাকে স্কুলে যেতে হয়েছিল।

সমাবেশে দাঁড়িয়ে, ‘আমি বাংলাদেশ থেকে এসেছি, যা জলবায়ু পরিবর্তনের শিকার দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম।’

সমাবেশের অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরে আলজাজিরাকে রেবেকা বলেন, ‘আমি শুধু ভাবতাম এই বিশাল সমাবেশে কিভাবে বাংলাদেশের নাম তুলে ধরবো। যেটিকে শুধু ক্রিকেটের জন্যই মানুষ চেনে। তবে আমার বক্তৃতার সময় সবাই চিৎকার ও করতালি দিয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ভেবেছিলাম যখন বাংলাদেশের নাম উচ্চারিত হবে তখনই সবাই চুপ থাকবেন। তবে সবার সাড়া দেখে আমি নিজেই অবাক। এটা শুধু পরিবেশগত সংকট না। এটা মানবাধিকার সংকটও। বাংলাদেশের নারীরা পাচারের শিকার হোন আর এটা জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে আরও বেড়েছে। আমরা বাংলাদেশে থাকা নারী ও রোহিঙ্গাদের জানাতে চাই, তাদের জীবনের জন্য বিশ্বজুড়ে আন্দোলন করছি আমরা।’

১৬ বছর বয়সী রেবেকার আশা, ‘জলবায়ূ সম্মেলনে আরও জরুরি পদক্ষেপ নেয়া হবে। আমরা চাই, এই সম্মেলনে যেন শুধু প্রাপ্ততথ্যের ওপর নোট নেয়া না হয়। বরং জীবাশ্ম জ্বালানি ব্যবহার বন্ধে যেন পদক্ষেপ নেয়া হয়।’

সূত্র: ব্রেকিংনিউজ।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *