ঢাকা-১৮ আসনের উপ-নির্বাচনে নৌকার টিকিট পাবেন আশা করছেন ওযালী আল-কাদির শুভ

টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: ঢাকা-১৮ আসনের উপ-নির্বাচনে মনোনয়ন পত্র দলীয় কার্যালয়ে জমা দিয়েছেন ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য মো. ওযালী আল-কাদির শুভ। দলীয় সভানেত্রীর করোনা বিষয়ক নির্দেশনা অনুসরণ করে পরিবার পরিজন নিয়ে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর ধানমন্ডি কার্যালয়ে মো. ওযালী আল-কাদির শুভ
মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। তার বাবা হচ্ছেন ভাষা সৈনিক ও সাংবাদিক মরহুম আমিনুল ইসলাম। তার মা’র নাম মিসেস মাজেদা ইসলাম। তিনি আইচি মেডিক্যাল গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক, আইচি মেডিক্যাল কলেজ এন্ড হসপিটালের নির্বাহী পরিচালক ও সিইও, জাপান ইষ্ট ওয়েষ্ট মেডিক্যাল কলেজ ও হসপিটালের পরিচালক, আপ-ডেট ডেন্টাল কলেজের পরিচালক, ইষ্ট ওয়েষ্ট নার্সিং কলেজ ইন্সটিটিউটের পরিচালক, আইচি জাপান ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস কো-অপারেশন লিঃ এর পরিচালক, জাপান ল্যাংগুয়েজ স্কুলের পরিচালক, সরদার ফজলুল করিম হাসপাতালের উপদেষ্টা। এছাড়াও অনলাইন নিউজ পোর্টাল টাইমস ২৪ ডটনেট, সার্জেন্ট-অ্যাট-আমর্স ও ডিরেক্টর, রোটারী ক্লাব অব উত্তরা ঝিলমিল, মকবুল মডেল স্কুল, এ্যাডমিনিস্ট্রেটর, ব্রেভহার্ট আইডিয়ালসের উপদেষ্টা হিসাবে রয়েছেন।
তার শিক্ষাগত যোগ্যতা হচ্ছে এসএসসি ১৯৯৩ ইং মতিঝিল আইডিয়াল হাই স্কুল (ষ্টার মার্কস প্রাপ্ত), এইচএসসি ১৯৯৫ খিলগাঁও মডেল কলেজ (বাণিজ্য-প্রথম বিভাগ) বিকম (পাস) ১৯৯৭ ঢাকা কলেজ ও ঢাকা (২য় বিভাগ)।
তিনি ফরিদপুর শহরের পশ্চিম খাবাসপুরে স্বয়ং সম্পূর্ণ একটি হসপিটাল নির্মাণ করবেন। এখানে সম্পূর্ণ আলাদা একটি অটিষ্টিক ডিপার্টমেন্ট থাকবে। ফরিদপুর সদরের ক্সকজুরী এলাকায় ফরিদপুর বাইপাস সংলগ্ন ভূমিতে একটি নার্সিং কলেজ ও ইন্সটিটিউট নির্মাণ করবেন।


তিনি প্রতি বছর নূন্যতম ৮০-১০০ জন ঠোঁট ও তালুকাটা শিশুদের বিনামূল্যে অপারেশন এর মাধ্যমে স্বাভাবিক মূখায়ব প্রদান করে আসছেন। বিপুল সংখ্যক সার্জন এই কাজে অংশ নেন। সুদূর আমেরিকায় রাদারসবার্গ ইউনিভার্সিটি থেকে ডাক্তাররা আসেন। সারা দেশব্যাপী অনুন্নত ও দূর্গম এলাকায় “ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প” এর ব্যবস্থা করা ও
সার্জারী রোগীদের ঢাকায় এনে বিনামূল্যে অপারেশন, চোখের ছানি কাটার ব্যবস্থা করা। উত্তরা ও তৎসংলগ্ন এলাকায় প্রাথমিক পর্যায়ের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিশুদের শিক্ষা উপকরণ ও স্বাস্থ্য উপকরণ প্রদান করে আসছেন। এছাড়াও করোনা মহামারির শুরুর দিকে নিম্নআয়ের লোকজন ও বেকার শ্রমিক/ মজুর পরিবারে মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিতরণ করেছেন। পরবর্তীকালে নগদ টাকা, চাল-ডাল বিতরণ করেন।
মো. ওযালী আল-কাদির শুভ ১৯৯১ সালে নবম শ্রেণীতে পড়া অবস্থায় ছাত্রলীগ কর্মী হিসেবে ৫ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নির্বাচনী কাজে অংশগ্রহণ করেন। ১৯৯৫-৯৬ সালে ঢাকা কলেজে অধ্যয়নকালে অসহযোগ আন্দোলনে ছাত্রলীগ কর্মী হিসেবে
ব্যাপকভাবে রাজপথে পিকেটিংসহ দূর্বার আন্দোলনের তৃণমুল কর্মী হিসেবে অংশগ্রহণ করেছিলেন। প্রয়াত এ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনের একজন স্নেহধন্য সহচর হিসেবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নির্বাচনী সর্ব প্রকার সহযোগীতা প্রদান করেছেন।
ঢাকা-১৮ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনের অকাল মৃত্যুতে এই আসনটি খালি হয়। এ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনের স্নেহের মো. ওয়ালী আল-কাদির শুভ ছিলেন অকুতোভয় মুজিব সৈনিক। এ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনের দুঃসময়ে তিনি পাশে থেকে সহযোগিতা করেছেন। ধারনা করা হচ্ছে এই সাবেক ছাত্র নেতাই উপ-নির্বাচনে নৌকার টিকিট পাবেন।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মো. ওয়ালী আল-কাদির শুভ বলেন, এ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন আমাদের অত্যন্ত প্রিয় মানুষ ছিলেন এবং আওয়ামী লীগের দুঃসময়ের কান্ডারী। আমি নৌকার টিকিট পেলে এডভোকেট সাহারা খাতুনের নামে হাসপাতাল ও নার্সিং কলেজ করবো।
স্থানীয় লোকজন জানিয়েছেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার চলমান উন্নয়নের ধারা চলমান রাখতে একজন সৎ, শিক্ষিত, এক কথায় ক্লিন ইমেজের ব্যক্তি প্রয়োজন। মো. ওয়ালী আল-কাদির শুভ দুঃসময়ের একজন মাঠ কর্মী। তিনি সৎ, শিক্ষিত, যোগ্য ও দূরদর্শী ব্যক্তি। তিনি সাহারা আপার মত একজন পরিচ্ছন্ন
রাজনীতিবিদ। দুর্নীতি তাকে কখনও স্পর্শ করতে পারেনি। তার পাওয়ার কিছুই নাই। তার সবই আছে। নেতা-কর্মীরা বলেন, তাকে আমরা মাঠে এনেছি দলের বৃহত্তর স্বার্থে।
প্রধানমন্ত্রীর জন্য ব্যাপক জনমত গড়তে ও আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে সব সময়েই আমরা তাকে পাশে পেয়েছি। ঢাকা-১৮ আসনের আপামর জনগোষ্ঠির জন্য তার বিকল্প আর কেউ নাই।
ঢাকা-১৮ উপনির্বাচন আসন্ন। আর এই একটি আসন থেকে ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ৫৬ জন। তার মধ্যে ৪ জন নারী এবং ৫২ জন পুরুষ। ইতিমধ্যে ব্যাতিক্রমী ২/১ জন ছাড়া বাকি সবাই আত্ম প্রচারে গ্রুপিং লবিং নিয়েই ব্যাস্ত সময় পার করছেন নিজ নিজ এলাকায়। পাশাপাশি সাধারণ মানুষও পড়েছেন বেকায়দায়। কাকে রেখে কার ডাকে সাড়া দেবেন কার পিছে থাকবেন, এমন দোদুল্যমান অবস্থা এখন ঢাকা-১৮ আসনের অধিকাংশ বাসিন্দাদের। এলাকার কেউ কেউ আবার অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটতে পারে বলেও শংকা প্রকাশ করেছেন। তবে সাংগঠনিক সিদ্ধান্তের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে কোন অদক্ষ কিংবা বিতর্কিত ব্যাক্তিদের নির্বাচনে অংশ নেবার কোন সুযোগ থাকছেনা এবারকার ঢাকা-১৮ উপনির্বাচনে। জনমত জরিপেও দিন দিন ক্লিন ইমেজধারী ব্যাক্তিদের গ্রহণযোগ্যতা বেড়েই চলেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

etiler escort taksim escort beşiktaş escort escort beylikdüzü

Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/times24/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757

Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/times24/public_html/wp-content/plugins/really-simple-ssl/class-mixed-content-fixer.php on line 110

Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/times24/public_html/wp-content/plugins/ssl-zen/ssl_zen/classes/class.ssl_zen_https.php on line 177