জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে পুলিশ

টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: বাংলাদেশের ইতিহাসে গর্বিত বাহিনী হলো পুলিশ বাহিনী। সেই মুক্তিযুদ্ধ থেকে আজ অবধি বাংলাদেশের মানুষের জানমাল রক্ষায় কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ পুলিশ। সাম্প্রতিক করোনা পরিস্থিতিতে তাদের দায়িত্ব আরো বেড়ে গেছে। জনগণের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে হাসিমুখে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে লড়াই করে যাচ্ছে বাংলাদেশ পুলিশ। মাঠ পর্যায়ে কাজ করতে গিয়ে পুলিশ সদস্যরা ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হচ্ছে। আক্রান্ত হয়ে প্রাণ বিসর্জন দিতেও হচ্ছে পুলিশ সদস্যদের।
জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বাংলাদেশের মহাসড়কে চাঁদাবাজি বন্ধে নিরলসভাবে কাজ করছেন পুলিশ। বাংলাদেশে চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই রোধে মহাসড়কে রাত-দিন কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছে। এছাড়াও বাংলাদেশের প্রত্যেকটি থানা এলাকায় মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতির নিয়ে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ। মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক সেবীদের ছাড় দিচ্ছে না পুলিশ। এছাড়াও সাধারণ মানুষ ‘৯৯৯’ নম্বরে ফোন করে পুলিশের জরুরী সেবা নিচ্ছেন। বাংলাদেশের পুলিশ খুব দক্ষতার সাথে কাজ করছে।
রাস্তা খারাপ হলে ইট ফেইলে রাস্তা মেরামত করছে পুলিশ। কেউ অসুস্থ হলে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হচ্ছে। গরিব ও নিম্ন মধ্যবিত্তকে খাদ্য দিয়ে সহযোগিতা করছে পুলিশ। এছাড়াও বাংলাদেশে বন্যাদুর্গত এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে পুলিশ। তাদের খাদ্য, জল ও অন্যান্য ব্যবস্থা করছে পুলিশ। এই পুলিশ বাহিনীকে জনবান্ধব করার জন্য আরো ভাল ভাল কাজ করে যাচ্ছে পুলিশ।
তবে পুলিশের ঊর্ধ্বতনসহ সংশ্লিষ্টরা বরাবরই বলছেন, ‘পুলিশ জনগণের বন্ধু’। বর্তমান পুলিশ ও অতীতের পুলিশ এক নয়। বর্তমান পুলিশ জনগণকে সঙ্গে নিয়ে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস মোকাবিলা করছে। কিন্তু পুলিশ কতটুকু জনবান্ধব হতে পেরেছে, তা নির্ভর করবে জনগণ পুলিশ সম্পর্কে কী ভাবছে ও তাদেরকে কতটা সহজভাবে গ্রহণ করছে, তার ওপরে। যেদিন জনগণ নিজে থেকে বলবে, ‘পুলিশ আমাদের বন্ধু’ সেদিনই বলা যাবে—বাংলাদেশ পুলিশ, জনবান্ধব পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

etiler escort taksim escort beşiktaş escort escort beylikdüzü