করোনাভাইরাস: নিউজার্সি, পুয়ের্তো রিকোতে কারফিউ জারি

টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: করোনাভাইরাস মহামারী নিয়ন্ত্রণে সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন রাজ্যে বাসিন্দাদের চলাচলে ব্যাপক কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে। ইউরোপীয় দেশগুলোতে স্কুল, সরকারি ভবন, প্রেক্ষাগৃহ, রেস্তোরাঁ ও বার বন্ধ ঘোষণার সিদ্ধান্ত অনুসরণ করেই সিদ্ধান্ত নেয়া হচ্ছে মার্কিন শহরগুলোতে। ব্যাপক-বিস্তৃত এই মহামারীতে যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত ৭০ জনের মতো মারা গেছেন। আর আক্রান্ত বেড়ে দাঁড়িয়েছে তিন হাজার ৭০০ জনে। এমন প্রেক্ষাপটে সোমবার কারফিউ জারি করার ঘোষণা দিয়েছেন নিউজার্সির গভর্নর ফিল মার্ফি। তিনি বলেন, এই কারফিউ আজ থেকে কার্যকর করা হবে। সব ধরনের অপ্রয়োজনীয় খুচরা বিক্রির দোকান, প্রমোদ ও বিনোদন ব্যবসা রাত ৮টার পর অবশ্যই বন্ধ ঘোষণা করতে হবে। ‘এছাড়া রাত ৮টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত নিউজার্সিতে সব ধরনের অপ্রয়োজনীয় ও গুরুত্বহীন ভ্রমণে জোরালোভাবে নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে।’ তিনি বলেন, ভবিষ্যতে নির্দিষ্ট একটা সময় পর্যন্ত এই বিধিনিষেধ বলবৎ থাকবে। আমরা চাই, সবাই বাড়িতে থাকুক। কেউ যেন বের না হন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দেশজুড়ে কারফিউ জারি করতে যাচ্ছেন বলে একটি প্রতিবেদন হোয়াইট হাউস অস্বীকার করার পর নিউজার্সির এমন উদ্যোগ এসেছে। প্রতিদিন নির্দিষ্ট একটা সময়ের জন্য অপ্রয়োজনীয় ব্যবসা বন্ধ রাখা হবে বলে সিএনএনের এক উপস্থাপকের টুইটের জবাবে ট্রাম্পের উপ প্রেসসচিব জুডি ডিয়ারি বলেন, এটা সত্যি না। রোববার পুয়ের্তো রিকোয় রাত ৯টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত কারফিউ জারি করা হয়েছে। বিপণিবিতান, প্রেক্ষাগৃহ, ব্যয়ামাগারও বন্ধ রাখা হবে। মার্কিন মাটিতে এটিই সবচেয়ে কঠিন পদক্ষেপ। সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের বড় শহরগুলোতে ব্যস্ত রাস্তা, সড়ক পরিবহনে রহস্যময় নীরবতা দেখা গেছে। লোকজন বাড়িতে বসে কাজ শুরু করে দিয়েছেন। আগামী কয়েক সপ্তাহে শিশুরা স্কুলে না যাওয়ার কথাই ভাবছে। সাধারণত নিউইয়র্ক শহর কখনো ঘুমায় না। সেখানকার লোকজন দিনের বড় একটা সময় ধরে ঘর থেকে বের হচ্ছেন না। মঙ্গলবার নাইটক্লাব, থিয়েটার, প্রেক্ষাগৃহ ও কনসার্ট ভেন্যু বন্ধ রাখতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। রোববার দিন শেষে মেয়র বিল ডে ব্লাসিও বলেন, নিউইয়র্কের বার ও রেস্তোরাঁগুলো সাধারণত কর্মব্যস্ত থাকে। কাজেই সেসব জায়গায় যাওয়া ও সরবরাহের ক্ষেত্রে কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে। নিউইয়র্কের স্কুলগুলো বন্ধ ঘোষণায়ও চাপ দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। এমএসএনবিসিতে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে সোমবার পরীক্ষা বাড়াতে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রতি তিনি আহ্বান জানান। বিল ডে ব্লাসিও বলেন, আমাদের একটি জাতীয় সমাধান দরকার। বাস্তবতা হচ্ছে, যুক্তরাষ্ট্র এখন যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত। সামরিক বাহিনী মোতায়েনের আহ্বান জানান এই মেয়র।
সূত্র: এএফপি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *