ইনডেমনিটি থেকে ফাঁসির মঞ্চে

মোহিত চৌধূরী
বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ সমার্থক শব্দ।
বিবর্তিত বাংলাকে তিনি বাংলাদেশে,
সৃস্টি করেছেন সৃষ্টি সুখের উল্লাসে।
ভাষা ভিত্তিক বাঙালি জাতিরাষ্ট্রের,
স্বপ্নদ্রস্টা তিনি প্রতিষ্ঠাতা তিনি।

বাঙালী জাতীয়তাবাদী চেতনায় শান দিয়ে।
তীক্ষ্ন ধারালো গভীর দূরদৃষ্টি সম্পন্ন তারুণ্য দীপ্ত মেধাবী ছাত্রনেতা তরুণ যুবক,
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।
এই বাংলার স্বপ্ন দেখেছিলেন।

বাংলার আকাশ বাতাস জল প্রকৃতি সাগর গিরি সিন্ধু নদী মা -মাটি মানুষ কে ভালোবেসেছিলেন।
ভালোবাসার ক্রমধারায় জেল জুলুম হুলিয়া ফাঁসির মঞ্চ আলিঙ্গন করেছিলেন।

অগ্নিঝড়া রক্তস্নাত গনতান্ত্রিক সংগ্রামের ক্রমদিনে।
যৌবনের রোজনামচায় ছুটেছেন প্রান্ত থেকে প্রান্তরে।
অশান্ত আবেগে পরাশোষকের রক্ত আঁখি চুর্ণ করে।
রক্তস্নাত সংগ্রামের পদ্ম কমলে,
রক্তস্রোতে ভিম কারার ঐ ভিত্তিমূলে।
যৌবনের মহাসঙ্গীতে গেয়েছেন…..।

শোষিতের গান।
বাঙালির বঞ্চনার মহাকাব্যে মোড়ানো,
বেদনার জয় গান।
স্বাধীনতার গান।
গনতন্ত্রের গান।
সমাজতন্ত্রের গান।
ধর্মনিরপেক্ষতার গান।
বাঙালী জাতীয়তাবাদী চেতনার গণ জাগরণের গান।

বঙ্গবন্ধু সমার্থক বাংলাদেশের হৃদয় জুড়ে,
যেখানে শুধূমামাত্র বাঙালীর বসবাস।
একটি পরম আত্মবিশ্বাস।
একটি বিশ্বাসী মন নিয়ে,
বাঙালীকে ভালোবেসে।
সুরক্ষিত বঙ্গ ভবনের পরিবর্তে,
অরক্ষিত ধানমণ্ডি বত্রিশ নম্বরে।
বাঙালীর জাতির পিতা ঘুমায়।
পরম নির্ভরতায় ঘুমায় বাংলাদেশটি ঘুমায়।
জাতিরাষ্ট্রের প্রতিস্ঠাতা ঘুমায়।

আসসালাতু খাইরুন মিনান্নাউম
নামাজের পথে এসো…।
ঘাতকের দল সদর্পে এগিয়ে চললো।
ট্যাঙ্ক কামান উদ্যত মেশিন গান নিয়ে।
আক্রমণ আক্রমণ বত্রিশ নম্বরে আক্রমণ!
জাতির পিতার ঘুম ভেঙ্গে যায় বুলেট বৃস্টিতে।

উদ্যত স্টেনগানের সন্মুখে দাঁড়িয়ে।
কি বিপ্লবী স্পর্ধায় উদাত্ত আহ্বান জানালেন।
কি চাস তোরা?
আমাকে তোরা কোথায় নিয়ে যেতে চাস?
দেশকে ভালোবাসার দন্ড হিসেবে।
প্রশিক্ষিত আঙুল ক্রমাগত ট্রিগার টিপলেন!
জাতির পিতা লুটিয়ে পড়লেন সিঁড়ির উপরে!
জাতির পিতার বক্ষ বিদীর্ন করে,
বারুদমাখা বুলেট বৃস্টি ছুটে স্বর্গপানে।
ডেড স্টপ? মৃত্যু উল্লাস……!

অতঃপর দৃশ্যপটের পরিবর্তন?
রাজসিংহাসনে বিশ্বাসঘাতক,
মোস্তাক জিয়ার আগমন।
জাতির পিতার হত্যার বিচার রোধিতে।
ঘাতক প্রাণ বাঁচাতে।
পৃথিবীর নিকৃষ্টতর কালো আইন,
ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ জারি।

জাতির পিতা হত্যার বিচারের বাণী।
ইনডেমনিটির ফাঁদে নিভৃতে কাঁদে।
বাংলার আকাশে চক্রান্তের ছায়াপথ।
ষড়যন্ত্রের কালো মিছিল,
রাজপথ জনপদে নগ্ননৃত্য উল্লাস করে!
বঙ্গবন্ধু মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশ নিষিদ্ধ নাম!
বাংলার গনতন্ত্র সেনা ট্যাঙ্কের চাকায় জড়িয়ে যায়।

শোষিতের গনতান্ত্রিক সংগ্রাম একটি সৃজনশীল শিল্প।
বাঙালী…..
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের
হত্যা সমর্থন করেনি।

বাঙালী স্বৈরতন্ত্র থেকে গনতন্ত্রের পথে,
অক্ষয় অবিনাশী ধারাবাহিক সংগ্রাম শেষে।
ইনডেমনিটি থেকে জাতির পিতার,
হত্যাকারীদের ফাঁসির মঞ্চে।
ফাঁসি দিয়ে প্রমান করেছে।
খুনি সন্ত্রাসবাদ মৌলবাদ জঙ্গিবাদ সাম্প্রদায়িকতা এবং সাম্রাজ্যবাদী শক্তির মৃত্তিকা বাংলা নয়।
এ মুজিবের বাংলা।
এ চির শোষিতের অবিনাশী বাংলা।

ফ্লোরেন্স সিটি ইটালী।
রবিবার প্রথম প্রহর।
১২এপ্রিল ২০২০ইং।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *