১৫ আগষ্ট জাতীয় শোকদিবস ও ২১ আগষ্ট উপলক্ষে আশকোণায় আলোচনা সভা দোয়া ও মিলাদের আয়োজন

শামীম চৌধুরী, টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসার মধ্য দিয়ে ১৫ আগষ্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোকদিবস পালন এবং ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলায় নিহত সকল শহীদের উদ্দেশ্যে শুক্রবার বাদ আছর আশকোণা মেডিকেল রোড, মুজিব অনুসারীদের উদ্যোগে আলোচনা সভা, দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। এ সময় জাতীয় শোকদিবসে আমন্ত্রীত অতিথিগণ বঙ্গবন্ধুর জীবনাদর্শ ও ১৫ আগষ্টের মর্মান্তিক ঘটনা নিয়ে স্বল্প পরিসরে আলোচনা সভা সম্পন্ন করেন। সভাপতিত্ব করেন আবুল কাসেম শেখ, সাংগঠনিক সম্পাদক জাতীয় শ্রমিকলীগ ঢাকা মহানগর উত্তর। স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন এ,কে,এম, মাসুদুজ্জামান মিঠু,সাধারন সম্পাদক দক্ষিণখান থানা আওয়ামীলীগ। অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন আলহাজ খসরু চৌধুরী, চেয়ারম্যান নিপা গ্রুপ ও কেসি ফাউন্ডেশন। শাহজাহান আলী মন্ডল,সভাপতি বিমানবন্দর থানা আওয়ামীলীগ। মাকসুদুর রহমান (মাসুম) ,সাধারন সম্পাদক বিমানবন্দর থানা আওয়ামীলীগ। জাকিয়া সুলতানা,মহিলা কাউন্সিলর ৪৯,৫০,৫১ নং ওয়ার্ড ঢাকা উত্তর সিটিকর্পোরেশন। বুলবুল খান্ডারী,সহ-সভাপতি বিমানবন্দর থানা আওয়ামীলীগ। আলহাজ শফিউদ্দিন মোল্লা (পনু),সাধারন সম্পাদক দক্ষিণখান ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ। এড. নুরুন্নাহার রিনি,সাবেক জনপ্রতিনিধি দক্ষিণখান ইউনিয়ন পরিষদ। মোঃ রকন মোল্লা, ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাতীয় শ্রমিকলীগ বিমানবন্দর থানা। খায়রুল ইসলাম,সাধারন সম্পাদক জাতীয় শ্রমিকলীগ বিমানবন্দর থানা। মোঃ জামাল বিশ্বাস, সহ-সভাপতি জাতীয় শ্রমিকলীগ বিমানবন্দর থানা। মোঃ হারুন অর রসিদ,সভাপতি আওয়ামী তৃনমূল লীগ দক্ষিণখান থানা। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন মোঃ রেজাউল হক টিপু,সহ-সভাপতি সেচ্ছাসেবক লীগ মাদারীপুর পৌর শাখা। , এ সময় বক্তারা বলেন, বঙ্গবন্ধু বাঙালি ও বাংলার অবিচ্ছেদ্য অংশ। দেশের মানুষের আশা আকাঙ্ক্ষা ও বাঙালি জাতির অস্তিত্ব ধুলিস্যাৎ করে দিতেই ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করেছে স্বাধীনতা বিরোধী কুচক্রীমহল। বক্তারা আরো বলেন, আমরা শোক দিবস পালন করছি সেটা যেমন বড় কথা, তার চেয়ে বড় কথা হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর দর্শন ও আদর্শ মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন করা।’ অসাম্প্রদায়িক চেতনায় জাতির জনকের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তোলার জন্য বক্তারা সবার প্রতি আহ্বান জানান। আরো বলেন, “১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্টের এই দিনে বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ পরিবারের সকল শহীদদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি। জাতির পিতা একজন সৎ ও যোগ্য নেতা ছিলেন। বক্তারা আরো বলেন, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বাকি খুনি, যারা বিদেশে পালিয়ে আছে, তাদের দেশে ফিরিয়ে এনে দ্রুত ফাঁসির রায় কার্যকর করতে হবে। তবেই ১৫ আগস্টের শহীদদের আত্মা শান্তি পাবে। এ সময় আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মী,এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ,বিভিন্ন পেশাজীবী ও পুলিশ সাংবাদিকের উপস্হিতি দেখা যায়। যাদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কারনে আজকের এই ১৫ আগষ্ট জাতীয় শোক দিবসের আয়োজন সফল হয়েছে তারা হলেন হামিদ, জনি ও ফরুক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

etiler escort taksim escort beşiktaş escort escort beylikdüzü