তুরাগে “সৎ সংঘ সংস্থা’র” উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ

শামীম চৌধুরী, টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা: রাজধানীর তুরাগের “সৎ সংঘ সংস্থা”র সদস্যদের মহৎ উদ্যোগের একটি সংবাদ বিভিন্নি গণমাধ্যমে প্রচারের পর, এখন টক অফ দ্য কান্ট্রিতে পরিণত হয়েছে। বিশ্বব্যাপী মহামারি করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) ছড়িয়ে পড়ার পর এর প্রার্দুভাব রোধে তুরাগের রাজনীতিবিদরা অসহায়,দু:স্থ ও গরীব মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। যে যার অবস্থান থেকে দরিদ্র পরিবারের পাশে ত্রাণ সামগ্রী ও বিভিন্ন ধরনের খাদ্য পণ্য নিয়ে বাড়ি বাড়ি গিয়ে হাজির হচ্ছেন। তার মধ্যে আবার অনেক দানশীল ব্যক্তি ও রাজনৈতিক দলের শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা গত এক সপ্তাহজুড়ে তুরাগের বেশ কয়েকজন শীর্ষ নেতার সহায়তা কার্যক্রম সত্যিই দেশের মানুষের মাঝে ভিন্ন এক অনুভুতির সৃষ্টি করেছে। ইতিমধ্যে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে কর্মহীন, গৃহবন্দী,নিম্ন ও গৃহবন্দী মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন তুরাগের ঐতিহ্যবাহী সামাজিক সংগঠন “সৎ সংঘ সংস্থা” নামের একটি সংগঠন। এই সংগঠনের সদস্যরা নিজ অর্থায়নে খাদ্যদ্রব্যসহ বিভিন্ন নিত্যপণ্য প্যাকেটজাত করে পৌঁছে দিয়েছেন অনেক অসহায় পরিবারের মাঝে। এই সংবাদটি ফেসবুক সহ যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। প্রচারিত সংবাদের ছবিতে দেখা যায়, “সৎ সংঘ সংস্থা”র সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদ রানা, অর্থ সম্পাদক ইব্রাহীম, প্রচার সম্পাদক শামিমসহ কয়েকজন সদস্য পৃথক পৃথক ভাবে হাতে সহায়তা সামগ্রী নিয়ে অসহায় পরিবারের বাড়িতে বাড়িতে ছুটে চলছেন। এই সংবাদটি গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে অনেকেই সংবাদের লিংকটি ফেসবুকে শেয়ার দেন এবং ভাইরাল হওয়ার পর কয়েকজন কমেন্টস করেছেন-সত্যি আবেগ আপ্লুত। এ বিষয়ে “সৎ সংঘ সংস্থা”র সম্পাদক মোঃ কাউসার বলেন, যেহেতু এটা স্বাভাবিক পরিস্থিতি নয়, তাই চেষ্টা করেছি এলাকার কর্মহীন মানুষের বাড়ি বাড়ি সহায়তা সামগ্রী পৌছে দিতে। এজন্য “সৎ সংঘ সংস্থা”র সকল সদস্যরা মিলেই তালিকা করেছি এবং সে অনুযায়ি যতটুকু সম্ভব হয়েছে-আমরা আমাদের নিজেদের অর্থায়নে সহায়তা সামগ্রী পৌছে দিয়েছে এবং দিচ্ছি। “সৎ সংঘ সংস্থা”র সহ সভাপতি মোঃ রবিউল ইসলাম বলেন, সংগঠনের সভাপতি জনাব মোঃ মনোয়ার হোসেন সাহেবের নির্দেশে ইতিমধ্যে উপার্জনক্ষম পাঁচ শতাধিক পরিবারকে প্রাথমিক ও দ্বিতীয় পর্যায়ে সহায়তা সামগ্রী পৌছে দিতে সক্ষম হয়েছি। প্রয়োজন পড়লে পর্যায় ক্রমে ধাপে ধাপে সংগঠনের পক্ষ থেকে আরও সহায়তা দেয়া হবে। ২০১৯ইং সালের শুরুর দিকে রাজধানীর তুরাগ এলাকার কয়েক যুবক ও শিক্ষার্থী মিলে প্রতিষ্ঠিত করেন “সৎ সংঘ সংস্থা” নামের এই সামাজিক সংগঠনটি। প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর থেকেই সংগঠনে যুক্ত হওয়া সদস্যরা মানব সমাজ উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রেখে যাচ্ছেন। বর্তমানে “সৎ সংঘ সংস্থা”র প্রায় ২০জন সদস্য রয়েছেন এবং তারা সকলেই তাদের কর্ম ও লেখাপড়ার পাশাপাশি দেশ ও মানব সেবায় নিয়োজিত রয়েছেন। সংগঠনের সভাপতি জনাব মোঃ মনোয়ার হোসেন বলেন, লোক দেখানোর জন্য নয়, মানসিক তৃপ্তি থেকে এভাবে কাধে সহায়তা সামগ্রী নিয়েছে সংগঠনের প্রায় ২০জন সদস্য। যেটি আমাদের এলাকার মুরুব্বীরা আমাদের শিখিয়েছেন। তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার করোনা মোকাবেলায় এরই মধ্যে সম্ভাব্য সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন। সৃষ্টিকর্তার অশেষ মেহেরবানী ও সরকারের গৃহীত সময়োপযোগী পদক্ষেপের কারণে বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস মহামারী রূপ এখন পর্যন্ত ধারণ করেনি। তবে আমাদের আত্মতুষ্টিতে বসে থাকলে চলবে না। তাই সরকারের নির্দেশ মোতাবেক যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে প্রস্তুত রয়েছে “সৎ সংঘ সংস্থা”র সকল সদস্যবৃন্দ। আমরা আমাদের সাধ্যমতো চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি যাতে করে আমাদের এলাকার কাউকে যেন না খেয়ে থাকতে না হয়। আর আমদের “সৎ সংঘ সংস্থা”র এই উদ্যোগ দেখে সমাজের অনেক বিত্তবানরা ইতিমধ্যে তাদের সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

etiler escort taksim escort beşiktaş escort escort beylikdüzü