করোনা আটকাতে ভ্যান চালক ছত্তর মিয়ার প্রশংসনীয় উদ্যোগ

মো.আ. জব্বার, ফুলবাড়ীয়া (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি, টাইমস ২৪ ডটনেট, ঢাকা : প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস তথা বিশ্ব মহামারি হতে আমাদের বাঁচতে হলে পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা, সাবধানতা এবং সচেতনতার কোন বিকল্প নাই। আর এই চিন্তা ও সাবধানতাকে সামনে রেখে ভ্যান চালক আ. ছাত্তার ওরফে ছত্তর মিয়ার এমনি মহৎ উদ্যোগ নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবী রাখে। তিনি গত কয়েকদিন যাবৎ উপজেলার কেশরগঞ্জ বাজার, নিশ্চিন্তপুর বাজার সহ বিভিন্ন বাজারের ষ্টেশনে রাস্তায়, অটো, সিএনজি, বাইক, বড় বড় গাড়ীতে, ড্রেন, নর্দমায় নিজ খরচে স্প্রে করে থাকেন। যে সকল জনবহুল এলাকায় বা স্থানে প্রতিদিনই নানান শ্রেণি ও পেশার অসংখ্য মানুষের আনাগোনা লেগেই থাকে সে সব এলাকায় বা স্থানে ছত্তর মিয়ার অভিযান চলে জোরদার। মাক্স, গ্লাপস, শার্ট, জুতা পরিহিত অবস্থায় প্রতিদিন সকাল থেকে তার অভিযান শুরু হয়ে চলে রাত ৮টা পর্যন্ত।
প্রত্যক্ষদর্শী প্রধান মো. মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, দৈনিক ১০০ থেকে ১২০-৩০ লিটার স্প্রে ছিটানো হয়। গাড়ি, মানুষ, দোকান হলে ২০ লিটার পানিতে ১ চা চামচ ব্লেসিং পাউডার মিশানো হয়। ড্রেণ বা নর্দমা হলে ১০ লিটার পানিতে ৫ চা চামচ পাউডার মিশানো হয়।
এছাড়াও তিনি ষ্টেশনে বা দোকানের সামনে ভালো ভাবে ধোয়ার জন্য হ্যান্ড ওয়াস ও পানির ব্যবস্থা রেখেছেন। এখানেই ক্ষান্ত হয়নি তার এই মহতী উদ্যোগ।
হাত ধোঁয়ার পরে হাত মোছার রেখেছেন গামছার ব্যবস্থা। শুধু অন্যের সচেতনতাই নয়, সচেতনতা অবলম্বন করছেন তিনি নিজেও। নিজের শরীর থেকে যেনো কোনো প্রকার জীবাণু দোকানের বিভিন্ন খাদ্যসামগ্রীর মধ্যে না ছড়ায় সেজন্য তিনি নিয়মিত হ্যান্ড গ্লাভস ও মাক্স ব্যবহার করছেন। তার এমন মহতী উদ্যোগ দেখে সমাজ সচেতন ও বাজারবাসী সবাই খুশি। জানিয়েছেন তাকে সাধুবাদও। একজন ভ্যান চালক হয়েও এমন মানবসেবা ও সচেতনতা এবং মানব কল্যাণে অবদান রাখা যায় তার প্রমাণ দিলেন ছত্তর মিয়া। যা মানুষের ভালোবাসা ও প্রশংসা কুড়াতে দাবী রাখে। ছত্তর মিয়ার বাড়ি ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া উপজেলা ৭নং বাকতা ইউনিয়নের নিশ্চিন্তপুর গ্রামে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

etiler escort taksim escort beşiktaş escort escort beylikdüzü