আক্রান্তের সংখ্যায় স্পেনকে ছাড়িয়ে গেল রাশিয়া

টাইমস ২৪ ডটনেট, আন্তর্জাতিক ডেস্ক: গত এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত, বিশাল আয়তনের দেশ রাশিয়ায় করোনা রোগীর সংখ্যা ২ হাজারের কম ছিল। মার্চ মাসের শেষে দেশটিতে করোনায় প্রাণহানির সংখ্যা ছিল মাত্র চারজন। চীনের সঙ্গে দীর্ঘ সীমান্ত থাকার পরও রাশিয়াকে করোনাভাইরাস কাবু করতে পারেনি বলে তৃপ্তির ঢেকুর তুলেছিল ভ্লাদিমির পুতিন প্রশাসন। আর সেই দেশে গত দেড় মাসে এতই করোনা বিস্তার লাভ করেছে যে শীর্ষে থাকা যুক্তরাষ্ট্রের পরেই এখন রাশিয়ার অবস্থান। অর্থাৎ আক্রান্তের সংখ্যায় দ্বিতীয় অবস্থানে এখন রাশিয়া। অথচ মাসের শুরুতেও স্পেন, ইতালি, ফ্রান্স থেকে অনেক নিচে অবস্থান করছিল দেশটি। আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডওমিটারস বলছে, রাশিয়ায় এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ২ লাখ ৮১ হাজার ৭৫২ জন। আক্রান্তের দিক দিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল স্পেন। সেখানে এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৭৭ হাজার ৭১৯ জন। সে হিসাবে স্পেন থেকে ৪ হাজার ৩৩ জন বেশি নিয়ে রোববার দ্বিতীয় অবস্থানে চলে আসে রাশিয়া। যদিও মৃত্যুর সংখ্যা স্পেন থেকে অনেক কম রাশিয়ায়। ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তথ্যানুযায়ী, রাশিয়ায় এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ২ হাজার ৬৩১ জন। আর স্পেনে এ সংখ্যা ২৭ হাজার ৬৫০ জন। সে হিসাবে এ পর্যন্ত রাশিয়ার চেয়ে ২৫ হাজারের বেশি করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে স্পেনে। রাশিয়ায় এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৬৭ হাজার ৩৭৩ জন। হাসপাতালে ও হোম কেয়ারে চিকিৎসাধীন ২ লাখ ১১ হাজার ৭৪৮ জন। এদের মধ্যে ২ হাজার ৩০০ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।
এদিকে মহামারীর সংক্রমণ ঠেকাতে গণহারে অ্যান্টিবডি পরীক্ষার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাশিয়া।
রয়টার্স জানিয়েছে, লকডাউন খুলে দেয়ায় সম্ভাব্য সময়সীমা যাচাই করতে মস্কো প্রতিদিন হাজার হাজার নাগরিকের অ্যান্টিবডি পরীক্ষা শুরু করছে। এ পর্যন্ত দেশটিতে ৭১ লাখ ৪৭ হাজার ১৪টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। আক্রান্তের হিসাব বিশ্লেষণে মস্কোর মেয়র সের্গেই সোবায়ানিন বলেন, প্রকৃত সংক্রমণের শিকার মানুষের সংখ্যা দাফতরিক তথ্যের চেয়ে অনেক বেশি। কারণ অনেক লোকের উপসর্গ দেখা দেয়নি বলে তারা বাহক কি না, বুঝতে পারেননি।

সূত্র: রয়টার্স ও যুগান্তর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

etiler escort taksim escort beşiktaş escort escort beylikdüzü